কচুয়ায় ধর্ষণের দু’মাস অতিবাহিত হলেও দাদা বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছে

কচুয়া প্রতিনিধি: 

কচুয়া ধর্ষণের দু’মাস অতিবাহিত হলেও দাদা বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছে। দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী ধর্ষণের দু’মাস অতিবাহিত হলেও আজও ধর্ষিতার মেডিকেল রিপোর্ট চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতাল থেকে কচুয়া থানায় আসেনি।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মামুনুর রশিদ মামুন মেডিকেল রিপোর্ট না পাওয়ার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি শীঘ্রই হাসপাতালে গিয়ে রিপোর্টটি নিয়ে আসবো এবং যথাসম্ভব দ্রুততম সময়ের মধ্যে মামলার চার্জশীট দাখিল করবো।

উপজেলার খিলমেহের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিশুটির ধর্ষক তার নিজ বাড়ির দুঃসম্পর্কীয় ষাটোর্ধ্ব বয়সী দাদা জামাল হোসেন দীর্ঘ সময় পালিয়ে থাকার পর বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছে এখন এলাকায়।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর বিকেলে শিশুটিকে ললিপপ খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে বাড়ির পাশের একটি পরিত্যক্ত গৃহে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষণের শিকার শিশুটি রক্তাত্ব অবস্থায় কাঁদতে কাঁদতে ঘরে এসে তার মাকে ঘটনা জানালে তাকে দ্রুত কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্ েএনে ভর্তি করানো হয়।

পরে তার অবস্থা অবনতি দেখে ওইদিন রাত ১১টার দিকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। শিশুটির স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে হাসপাতালে শিশুটির ধর্ষণের আলামত পাওয়ার বিষয়টি তার পরিবারের সদস্যদের নিশ্চিত করেন।

এদিকে এ শিশু ধর্ষণকারী জামাল হোসেনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে কচুয়ায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। কচুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিশুটির বাড়ি গিয়ে তার খোঁজখবর নেন ও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে পরিবারের সদস্যদেরকে আশ্বস্ত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয় খবর

সর্বশেষ খবর

দিনপঞ্জিকা

November 2020
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  

আর্কাইভস