মুনমুনের পরেই অশ্লীলতার অভিযোগ-চলচ্চিত্রে আর ফিরবেন না ময়ূরী

বিনোদন:

এককালের ঢাকাই সিনেমার আবেদনময়ী ও সমালোচিত অভিনেত্রী ছিলেন ময়ূরী। অশ্লীলতার অভিযোগে অভিযুক্ত নায়িকাদের শীর্ষে মুনমুনের পরেই ময়ূরীর নাম পাওয়া যায়। ১৯৯৮ সালে মৃত্যুর মুখে চলচ্চিত্রের মাধ্যমে চলচ্চিত্র জগতে আগমন করেন। তবে আরো ভিন্ন তথ্যও জানা যায়।

চলচ্চিত্রের জুনিয়র শিল্পী সেতুর মেয়ে ময়ূরী। তাকে চলচ্চিত্রে নিয়ে আসেন মাহমুদ নামে একজন প্রযোজক। ছবির পরিচালক ছিলেন কবি আবুল হাসানের ছোট ভাই প্রয়াত আবিদ হাসান বাদল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ছবিটি নির্মিত হলেও ময়ূরী ছবিটিতে ছিলেন না। তিনি ক্যারিয়ার শুরু করেন রাজা নামের একটি ছবি দিয়ে। এরপর তিনি ক্যারিয়ার সজীব রাখার জন্য এমন একটি ঘরানার প্রযোজকদের ছবিতে জড়িত হতে থাকেন যারা কখনও ভালো ছবি নির্মাণ করেন না।

ময়ূরী অর্থ উপার্জন করেছেন সে সময় অনেক এবং মগবাজার এলাকায় একটি ফ্ল্যাট কিনেছেন। বর্তমানে তিনি সেই ফ্ল্যাটেই আছেন। সংসার করছেন এবং তার দুই সন্তান রয়েছে। ময়ূরীর স্বামী রেজাউল করিম খান মিলন মারা যান ২০১৫ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর। মিলন টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন।

ময়ূরী অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র ‘বাংলা ভাই’। নব্বই দশক থেকে এ পর্যন্ত ময়ূরী অভিনীত তিনশত সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোতে তিনি যতটা প্রশংসিত হয়েছেন তার চেয়ে বেশি সমালোচিত হয়েছেন। নার্গিস আক্তার পরিচালিত ‘চার সতীনের ঘর’ শিরোনামের সিনেমায় শক্তিমান চলচ্চিত্রাভিনেতা আলমগীরের স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছিলেন ময়ূরী।

জনপ্রিয় খবর

সর্বশেষ খবর

দিনপঞ্জিকা

September 2021
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930  

আর্কাইভস