হাজিগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদের মুসল্লিদের নিরাপত্তা দিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অবস্থান

নিজস্ব প্রতিনিধি:

হাজিগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদের মুসল্লিদের নিরাপত্তা দিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অবস্থান। সবকটি মন্দিরে ছিল নিরাপত্তার চাদরে ডাকা।হাজীগঞ্জ উপজেলায় ১৩ অক্টোবর বুধবার রাতে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষের ঘটনায় তিনটি মামলা। দুই হাজার জনকে আসামি করে মামলা । রাজারগাঁও ইউনিয়নের মুকন্দসার গ্রামে হামলার ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ হারুনুর রশিদ জানান, বিভিন্ন সিসিটিভি ফুটেজ দেখে আসামীদের সনাক্ত করা হচ্ছে। অন্যায়ভাবে কাউকে আটক করা হবেনা। হাজীগঞ্জ উপজেলায় মোট ১২টি পূজামণ্ডপ ভাঙচুর হয়েছে। পুলিশ বাদী হয়ে দুটি ও মন্দির ভাঙার দায়ে মন্দির কর্তৃপে একটি মামলা করেছে।

এ পর্যন্ত সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিকে হাজীগঞ্জে জনতা-পুলিশের সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসককে প্রধান করে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে সাত দিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

অন্যদিকে বুধবার রাতে হাজীগঞ্জ বাজারে পুলিশ ও জনতার মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত আল আমিন, শামীম ও হৃদয়ের দাফন তাদের নিজ গ্রামের সম্পন্ন হয়েছে এবং নির্মাণ শ্রমিক বাবলুর মৃত্যুদেহ গ্রামের বাড়ী চাপাইনবাবগ জেলার সুন্দরগঞ্জ ভাগডাঙ্গায় নেয়া হয়েছে।

এদিকে হাজিগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করতে আসা মুসল্লিদের নিরাপত্তা দিতে শুক্রবার ১৫ অক্টোবর ২০২১ দুপরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাঁচটি স্তর মসজিদ বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নিয়ে ছিল। এছাড়া সবকটি মন্দিরে ছিল নিরাপত্তার চাদরে ডাকা।

জনপ্রিয় খবর

সর্বশেষ খবর

দিনপঞ্জিকা

November 2021
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  

আর্কাইভস