হাজীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ মজুমদারকে আবারো চেয়ারম্যান পদে দেখতে চায় উপজেলাবাসী

—মো. সাইফুল ইসলাম—

হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষণা দেয়ার পর থেকে উপজেলাবাসীর মনে আবারো জল্পনা কল্পনা যে, আমরা হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেযারম্যান হিসাবে অধ্যাপক আবদুর রশিদ মজুমদারকে দেখতে চাই।

শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত এবং বর্তমান দায়িত্বরত উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অধ্যাপক আবদুর রশিদ মজুমদার। এক বিবৃতিতে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে তিনি প্রার্থীতা ঘোষণা দেন। প্রাথীতা ঘোষণার পর থেকে যেনো বাদ ভাঙ্গা ঢল নামে সাধারণ ভোটারদের মাঝে। তারা আবারো এই জননন্দিত জনপ্রিয় চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুর রশিদ মজুমদারকে এই পবিত্র আসনে আবারো বসাবেন বলে আশা ব্যক্ত করেন।

আলহাজ্ব অধ্যাপক আবদুর রশিদ মজুমদার হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন মকিমাবাদ গ্রামের মজুমদার বাড়ির মৃত আলহাজ্ব আ. মতিন মজুমদারের ছেলে। বিএ (সম্মান) ও এমএ অর্থনীতি’তে ডিগ্রিধারী অধ্যাপক আব্দুর রশিদ মজুমদার ১৯৮০ সালে হাজীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজে শিক্ষকতার মাধ্যমে কর্মজীবন শুরু করেন। এরপর ২০০৮ সাল পর্যন্ত তিনি কর্মরত ছিলেন।

অধ্যাপক আবদুর রশিদ মজুমদার ছাত্রলীগের প্রার্থী হিসেবে ১৯৬৯ সালে আমিন মেমোরিয়াল উ”চ বিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের ভিপি নির্বাচিত হয়ে ১৯৭০ সালের নির্বাচনে সক্রিয়ভাবে অংশ গ্রহণ করেন। ১৯৭১ সালে জীবনবাজী রেখে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহণ করেন। যুদ্ধপরবর্তীকালীন সময়ে দেশ ও জাতীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ সন্তান আতাউল গনি ওসমানীর হতে যুদ্ধে অংশগ্রহণের স্বীকৃতি স্বরূপ সনদপত্র (নং-৮৫৫৯৯) গ্রহণ করেন।

২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে অধ্যাপক আবদুর রশিদ মজুমদার দেশের শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার হতে পুরস্কার ও এ্যায়ওয়ার্ড লাভ করে উপজেলাকে সম্মানিত করেন। এরপর তিনি ২০১৪ সালে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে অদ্যাবধি ২০১৯ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করছেন।

এর আগে তিনি হাজীগঞ্জ পৌরসভার চেয়ারম্যান হিসেবে দুই মেয়াদে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭২ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ ও পরবর্তীতে চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সক্রিয় সদস্য ছিলেন। ১৯৮৬ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী আ. রব, ১৯৯৬, ২০০৮ ও  ২০১৮ সালের মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম এর নৌকা প্রতীকের চিপ এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করে নৌকার বিজয় অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করেন। ২০০১ সালে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও চিপ এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

কিš‘ তখন নির্বাচনী কারচুপির মাধ্যমে আওয়ামী লীগের বিজয় ছিনিয়ে নেয়া হয়। ১৯৬৯ সালে ছাত্রলীগের প্রার্থী হিসেবে আমিন মেমোরিয়াল উ”চ বিদ্যালয়ের ভিপির হওয়ার পর থেকে, আজ পর্যন্ত তিনি জাতীয় ও ¯’ানীয় সকল নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত ও সমর্থিত প্রার্থীর পক্ষে প্রত্যক্ষ কাজ করে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখছেন।

২০০০ সালে উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়ে দলীয় সংবিধান মেনে সু-শৃঙ্খলভাবে দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করেন। বর্তমানে তিনি জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মানিত সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এ ছাড়াও অধ্যাপক আবদুর রশিদ মজুমদার শিক্ষা ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃত্ব ও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করছেন। তার মধ্যে অন্যতম রোটারী ক্লাব অব হাজীগঞ্জ, আমিন মেমোরিয়াল উ”চ বিদ্যালয়, হাজীগঞ্জ বনফুল সংঘ, হাজীগঞ্জ সবুজ সংঘ, হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদ কমপ্লেক্স, হাজীগঞ্জ মডেল হাসপাতাল, হাজীগঞ্জ ব্লাড ডোনার্স ক্লাবসহ অসংখ্য সেবামূলক সামাজিক সংগঠনের সাথে নিজকে সুনামের সাথে জড়িত রাখছেন।

অধ্যাপক আবদুর রশিদ মজুমদারের আবারো উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীতা ঘোষণা করায় হাজীগঞ্জ উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে ও পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডের সাধারণ ভোটারদের মাঝে আনন্দের বাঁধ ভাঙ্গা বন্যা বইতে দেখা যায়। কেউ কেউ আবার আনাগোনা করে বলতে শুনা গেছে যে, এমনই একজন ব্যক্তি বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুর রশিদ মজুমদার যিনি ৫ওয়াক্ত নামাজ হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদের বড় জামাতে প্রথম কাতারে ইমাম সাহেবের অতি নিকটে থেকে আদায় করেন।

তিনি সকলের দোয়ায় বড় ধরনের অসু¯’তা থেকে রক্ষা পেয়ে সু¯’ হয়ে সবার মঙ্গলে কাজ করে যা”েছন। দেশের একমাত্র সুনামধন্য খ্যাতিমান অর্জনকারী স্বর্ণ পদক প্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ মজুমদার। এক সাক্ষাতকারে গতকাল বুধবার ২৩ জানুয়ারি তিনি আমাদের নির্বাহী সম্পাদককে বলেন, আমি জেলা, উপজেলা, পৌর ও দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করছি।

আগামী দিনেও যেনো মানব কল্যাণে কাজ করে যেতে পারি সেজন্য সবার কাছে ভালোবাসা চাই। আমার কোনো চাওয়া পাওয়া নেই, আমি সমাজের কল্যাণে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যেতে চাই।  যদি আমি সর্বস্তরে জনগণের ভোটে আবারো নির্বাচিত হই তাহলে অতীতের ন্যায় আগামী দিনেও সবার সুখে দুখে সব সময় আমাকে আপনারা পাশে পাবেন।

-লেখক-

মো. সাইফুল ইসলাম

প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক

হৃদয়ে চাঁদপুর

জনপ্রিয় খবর

সর্বশেষ খবর

দিনপঞ্জিকা

September 2021
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930  

আর্কাইভস